অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম 2023

আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদের তথ্যে কি ভুল আছে? যদি ভুল থেকেও থাকে কোনো সমস্যা নেই। কারন বর্তমানে অনলাইনে আবেদন করে ৩-৫ দিনের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা যায়।

আজকের আয়োজনে ২০২৩ সালের জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন আপডেট, জন্ম নিবন্ধনের তথ্য কিভাবে সংশোধন করা যায় এবং সংশোধনের জন্য কিভাবে আবেদন করতে হয় তা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কি কি লাগে

নিবন্ধন সংশোধনের জন্য কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের দরকার হবে।নিচে তা দেওয়া হলো

  • নাম,জন্ম তারিখ ও পিতা -মাতার নাম সংশোধিত তথ্যঃ এইগুলো সংশোধনের জন্য আপনাকে ভোটার আইডি কার্ড, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ,পাসপোর্ট কপি,পিতামাতার জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন,টিকা কার্ড/হাসপাতালের সনদ।
  • স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তনঃ চেয়ারম্যান বা কাউন্সিলরের প্রত্যয়নপত্র,স্থায়ী ঠিকানার হালনাগাদ, কর পরিশোধের রসিদ।
  • বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তনঃ ইউটিলিটি বা বিদ্যুৎ বিলের কপি।
জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম – birth certificate correction

নিবন্ধন সংশোধন বা birth certificate correction করার জন্য প্রথমেই আপনাকে আমার দেওয়া এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন। এরপর লগইন করে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে সার্চ করে নিবন্ধন কার্যালয় বাছাই করে নিন।আপনি যে তথ্য সংশোধন করতে চান তা সিলেক্ট করে সঠিক তথ্য দিন।প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আডলোড করে সাবমিট করুন।সব শেষে আবেদনের একটি প্রিন্ট কপি এবং প্রয়োজনীয় প্রমানপত্র জন্ম নিবন্ধন অফিসে জমা দিন।

জন্ম নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ আপনার আবেদনটি অনুমোদন করলে পরবর্তীতে আপনি আপনার সংশোধিত জন্ম নিবন্ধনটি সংগ্রহ করতে পারবেন।

তবে একটা বিষয় মনে রাখবেন জন্ম নিবন্ধনের আবেদনে সর্বোচ্চ ৪ বার করা যায়। তাই  সব কিছু বিবেচনা এবং সঠিক তথ্য দিয়ে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করবেন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন কিভাবে করবেন?

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের আগে নিশ্চিত হয়ে নিবেন আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করা আছে কিনা।কারন শুধুমাত্র অনলাইন করা আছে এমন জন্ম নিবন্ধনই সংশোধন করা যায়।

আমরা আপনাদের বুঝার সুবিধার্থে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন প্রক্রিয়াটি স্কিনশট সহকারে দিলাম, যাতে আপনাদের বুঝতে সুবিধা হয়। আমরা এই কাজটি ৮টি ধাপে শেষ করার চেষ্টা করবো।

ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইটে প্রবেশ

নিবন্ধন সংশোধনের জন্য প্রথমে আপনাকে এই ওয়েবসাইটে যেতে হবে।অথবা Google Chrome ব্রাউজার অথবা আপনার পছন্দের ব্রাউসারে গিয়ে bdris.gov.bd লিখে সার্চ করে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন
অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন

ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর উপরের জন্ম নিবন্ধন এর সাব মেনু জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন এ ক্লিক করুন।

ধাপ ২ঃ জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য  বের করুন

জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদনে এ ক্লিক করার পর নতুন একটা পেইজে চলে আসবেন।এই ধাপে প্রথম বক্সে আপনার ১৭ ভিজিটের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এবং পরের ধাপে জন্ম তারিখ লিখুন।জন্ম নিবন্ধন ও জন্ম তারিখ সঠিকভাবে লেখা হলে দ্বিতীয় ধাপে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করে আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করার পর জন্ম নিবন্ধনের কিছু তথ্য দেখতে পারবেন।কিছু তথ্য দেখে জন্ম নিবন্ধন সিওর হলে “নির্বাচন” বাটনে ক্লিক করে কনফার্ম হন।

জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও তারিখ
জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও তারিখ

ধাপ ৩ঃ নিবন্ধন কার্যালয় বাছাই

এই ধাপে আপনার কার্যালয় বাছাই করতে হবে।অর্থ্যাৎ,আপনি যে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভার অধীনে জন্ম নিবন্ধন সনদ করেছেন তার ঠিকানা উল্লেখ্য করতে হবে।

এই ধাপে আপনাকে দেশ,বিভাগ,জেলা,সিটি কর্পোরেশন/উপজেলা, পৌরসভা/ইউনিয়ন পরিশোধ সিলিক্ট করে অফিস যাচাই করতে হবে।উপরের সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করতে হবে।

নিবন্ধন কার্যালয় বাছাই
নিবন্ধন কার্যালয় বাছাই

ধাপ ৪ঃ সংশোধনের তথ্য বাছাই

এই ধাপে আপনি জন্ম নিবন্ধনের যেই সমস্যাগুলো বা তথ্যগুলো সংশোধন করতে চান তা সুন্দর ভাবে লিখবেন।

আপনি যদি বাংলা নাম সংশোধন করতে চান তাহলে বিষয়ের পাশে ড্রপডাউন ক্লিক করে বাংলা সিলেক্ট করুন।ইংরেজি হলে ড্রপডাউনে ক্লিক করে বাংলা সিলেক্ট করুন।অর্থ্যাৎ,আপনি এখানে যেই বিষয় সংশোধন করতে যাবেন সেই বিষয় সিলেক্ট করবেন।

ধাপ ৫ঃ জন্ম দিনের সংশোধিত তথ্য ও সংশোধনের কারন ও দিন

আমি আমার জন্ম নিবন্ধনের মোট ৩টি তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করেছি।আপনি আবেদনের কারন হিসেবে দিবেন  ভুলভাবে লিপিবদ্ধ হয়েছে এটি সিলেক্ট করে দিবেন।আমি জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য ক্যালেন্ডার থেকে জন্মদিন, জন্ম মাস এবং জন্ম সাল সিলেক্ট করে নিলাম।

জন্ম দিনের সংশোধিত তথ্য
জন্ম দিনের সংশোধিত তথ্য

ধাপ ৬ঃ ঠিকানা লিখুন

পরবর্তী ধাপে আপনাকে স্ক্রল করে নিচে যেতে হবে।নিচে গিয়ে আপনার জন্ম স্থান,স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানার জেলা উপজেলা সিলেক্ট করবেন।আপনি সর্টকার্ট নিচের ছবিতে দেখুন আপনার কি কি করতে হবে।

ঠিকানা লিখুন
ঠিকানা লিখুন

ধাপ ৭ঃ প্রমাণপত্র আপলোড ও অনলাইনে আবেদন জমা

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের ফরম পূরণের পর আবেদনের সাথে আপনার মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিজে সিলেক্ট করুন। আপনি যদি আপনার সন্তানের জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট সংশোধন করেন সেখানে মা/বাবা হিসেবে আপনার নাম দিয়ে দিতে পারবেন। মা বাবা না থাকলে আবেদনকারী আইগত অভিভাবক সিলেক্ট করবে। 

তবে মা-বাবা না হয়ে আইনগত অভিভাবক হলে চাচা-চাচী,নানা-নানি,মামা-মামি হলে তাদের ভোটার আইডি কার্ড বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর লাগবে।আপনি একটু নিচের ছবিটা দেখুন।

প্রমাণপত্র-আপলোড
প্রমাণপত্র-আপলোড-1

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে সবুজ সংশোধন বাটনে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় প্রমানপত্র স্ক্যানড কপি ডাউনলোড করবেন।আপনি আপনার মোবাইলে তোলা ছবি দিতে পারবেন।তবে অবশ্যই ছবি যেনো সোজা,পরিষ্কার অন্ধকার মুক্ত স্থানে তোলা হয়।

এরপর পেমেন্ট অপশনে ফি আদায় সিলেক্ট করে নিবেন।সব কিছু আরেকবার চেক করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ৮ঃ জন্ম নিবন্ধন সংশোধন পত্র প্রিন্ট

আপনি যখন জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন করবেন তখন আপনাকে একটি অ্যাপ্লিকেশন আইডি বা রেফারেন্স নম্বর দিবে।আপনি সেটা কালেক্ট করে আবেদন পত্রের প্রিন্ট কপিতে লিখে দিন।এরপর জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের পত্রটি প্রিন্ট করে নিন।

আবেদন পত্রটি প্রিন্ট করা হলে আপনার সংশ্লিষ্ট  নিবন্ধক অফিস ইউনিয়ন পরিষদ/সিটি কর্পোরেশন/পৌরসভায়  জমা দিন।

জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন কার্যক্রমটি বন্ধ রয়েছে। তবে উপযুক্ততা প্রমাণের  ভিত্তিতে দিন এবং মাস সংশোধনের জন্যই আবেদন করা যাবে।

জন্ম নিবন্ধন নাম সংশোধন করার নিয়ম

আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন নাম সংশোধন করতে চান তাহলে একই ভাবে আপনাকে আবেদন করতে হবে।আপনি যদি উপযুক্ত প্রমান পত্র দিতে পারেন সর্বোচ্চ ১৫ দিনের মধ্যেই আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম সংশোধন হয়ে যাবে।

নিজের নাম সংশোধন করার ক্ষেত্রে বয়স এবং সংশোধনের ধরন অনুযায়ী আপনার আলাদা আলাদা ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন পড়বে।

জন্ম নিবন্ধনে ইংরেজি তথ্য সংযোজন

আগে জন্ম নিবন্ধন  ইংরেজি তথ্য অন্তর্ভুক্ত ছিলো না।কিন্তু বর্তমানে অনলাইন ডাটাবেইজের কারনে ইংরেজি তথ্য সংযোজন করার সুযোগ হয়েছে।

আমর যারা এখনোও জন্ম নিবন্ধনে ইংরেজি তথ্য সংযোজন করিনি তার সংযোজন করে নিবেন।আপনি অনলাইনে ঘরে বসেই এই কাজটি খুব সহজেই করে নিতে পারবেন।তবে আপনি যদি এই সম্পর্কে আরোও ভালো জানতে চান তাহলে আমাদের বাংলা থেকে ইংরেজী করার নিয়ম পোস্টটি দেখে নিতে পারেন।

আরো পড়ুন: জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজী করার নিয়ম জেনে নিন

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার ফি

  • তথ্য সংশোধনের জন্য ফিঃ বাংলাদেশে ১০০ এবং বিদেশে ২ ডলার।
  • জন্ম তারিখ ব্যতীত শুধুমাত্র নাম/পিতার নাম/মাতার নাম ইত্যাদির জন্যঃ দেশে ১০০ টাকা বিদেশে ১ ডলার।
  • বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষায় মূল সনদ ও সংশোধনের কপি সরবরাহঃ দেশে ৫০ টাকা এবং বিদেশে ১ ডলার।
  • বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় নকল সরবরাহঃ দেশে ৫০ টাকা এবং বিদেশে ১ ডলার।

আরো পড়ুন: Jonmo Nibondhon Jachai 2023 – সহজে জন্ম নিবন্ধন যাচাই ২০২৩

পরিশেষে

আজকের আয়োজনে আমরা জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এই আয়োজনের মাধ্যমে কিভাবে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে হয়, নিবন্ধন সংশোধন করতে কি কি লাগে ইত্যাদি বিষয় পরিষ্কার করেছি।

আশা করা যায় আপনি সম্পূর্ণ বিষয় বুজেছেন।এরপরও যদি কোনো বিষয় আপনার কাছে অস্পষ্ট লাগে তাহলে নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

বিঃ দ্রঃ সার্ভার আপডেট এর কাজ চলছে তাই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার কার্যক্রম আপাতত বন্ধ আছে, পুনরায় চালু হলেই আপনারা আবার নতুন করে অনলাইনে নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন ।

FAQ- প্রশ্নোত্তর

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কতদিন লাগে?

উত্তরঃ ৩-৫ দিন

জন্ম নিবন্ধন সর্বোচ্চ কতবার সংশোধন করা যায়?

উত্তরঃ ৪

জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইটে নাম কি?

উত্তরঃ bdris.gov.bd

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার তথ্য ফরমটি কোথায় জমা দিতে হবে?

উত্তরঃ ইউনিয়ন পরিষদ/সিটি কর্পোরেশন/পৌরসভা।

Leave a Reply

error: Alert: Content selection is disabled!!